নিয়ম এবং প্রবিধান

১. নিয়মানুবর্তিতা ও সময়ানুবর্তিতা : প্রত্যক শিক্ষার্থীকে নিয়মিত এবং যথাসময়ে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হতে হবে।নির্ধারিত শিফ্ট- এর নির্ধারিত সময়ের অন্তত ১৫ মিনিট পূর্বে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে হবে।

২. অনুপস্থিতি: অসুস্থতা ব্যতীত অন্য কোন কারণে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত হতে পারবে না।অসুস্থ হলে অভিভাবকের স্বাক্ষরসহ দরখাস্ত নিয়ে আসবে। বিনা অনুমতিতে অনুপস্থিত থাকলে প্রতিদিন অনুপস্থিতির জন্য ১০ টাকা হারে জরিমানা প্রদান করতে হবে। বিদ্যালয়ে আসার পর কারো কোন প্রয়োজনে ছুটি প্রয়োজন হলে যথাযথ কারণ উল্লেখপূর্বক প্রধান শিক্ষক বরাবরে আবেদনপত্র শ্রেণি শিক্ষকের সুপারিশসহ জমা দিয়ে ছুটি নিতে হবে।উপস্থিতি শতকরা ৮৫%-এর কম হলে সেই ছাত্রীকে পরীক্ষার অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে না।

৩. নৈতিকতা : সদা সত্য কথা বলবে, সৎ কাজ করবে, অসত্য, অন্যায় ও দুর্নীতিমূলক যে কোন ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকবে। পিতা-মাতা, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও বড়দের ভক্তি-শ্রদ্ধা করবে এবং সালাম দিবে।ছোটদের স্নেহ করবে।নিজ নিজ ধর্মের অনুশাসন মেনে চলবে।

৪. বিদ্যালয়ের নিয়ম-শৃঙ্খলা :

ক. বিদ্যালয়ের নিয়ম-শৃঙ্খলা যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে। বিরতির সময় ছাড়া শ্রেণিকক্ষে গোলমাল, বারান্দায় অযথা দৌড়া-দৌড়ি, অযথা হৈ-চৈ করবে না।

খ. প্রাত্যাহিক সমাবেশে অবশ্যই উপস্থিত হতে হবে।সমাবেশে জাতীয় সংগীত ও শপথ উচ্চস্বরে পাঠ করতে হবে।

গ. বিদ্যালয়ে কোন প্রকার অলঙ্কার/মূল্যবান গহনা পরিধান করে আসবে না।

ঘ. বিদ্যালয়ে কোন ছাত্রী মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করতে পারবে না। কারো ফোন করার প্রয়োজন হলে প্রধান শিক্ষকের অনুমতি নিয়ে বিদ্যালয়ের ফোন ব্যবহার করবে।

ঙ. পরীক্ষা চলাকালে কোনরুপ অসদুপায় অবলম্বন করবে না। করলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসেবে সকল পরীক্ষা বাতিল করা হবে।

চ. বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র ( বেঞ্জ, চেয়ার, টেবিল, বোর্ড) দেয়াল, দরজা, জানালা ইত্যাদিতে কিছু লেখা, নষ্ট করা বা যে কোন ধরনের ক্ষয়-ক্ষতি থেকে বিরত থাকবে।

ছ. পাঠোন্নতির বিবরণ, বেতন কার্ড কোনরূপ ঘষামাজা করা, বা কিছু লেখা যাবে না।

জ. ক্লাসে উপস্থিত না হয়ে অন্য কোথাও ঘোরাঘুরি করা যাবে না।

ঝ. ক্লাসের বাইরে কোন প্রয়োজনে যেতে হলে ক্লাস ক্যাপ্টেনের অনুমতি নিয়ে যেতে হবে।

ঞ. নির্ধারিত তারিখ ও সময় ব্যতীত লাইব্রেরিতে যাওয়া যাবে না।

৫. পরীক্ষা পদ্ধতি ও প্রমোশন : প্রতিটি শিক্ষাবর্ষে দুটি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।উভয় পরীক্ষায় আলাদা আলাদাভাবে পাস করতে হবে। উভয় পরীক্ষায় মোট নম্বার / গ্রেডের ভিত্তিতে চূড়ান্ত মেধা